বৃহস্পতিবার, ১৩ Jun ২০২৪, ০৬:৪৩ অপরাহ্ন

সরকারি জরুরি হটলাইন

সরকারি তথ্য ও সেবা-৩৩৩, জরুরি সেবা-৯৯৯, নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে-১০৯, দুদক-১০৬, দুর্যোগের আগাম বার্তা-১০৯০, শিশুর সহায়তায় ফোন-১০৯৮, ভূমির সেবা পেতে...অভিযোগ জানাতে-১৬১২২, ই-জিপি জরুরি হেল্পলাইন-১৬৫৭৫, নৌপরিবহনের হেল্পলাইন-১৬১১৩। তথ্য সুত্র : পিআইডি

শিরোনাম
মানুষ এখন শখ করে পান্তা ভাত খায় : খাদ্যমন্ত্রী ‘স্মার্ট বাংলাদেশের অংশীদার হই, বাল্যবিবাহ, ইভটিজিং ও মাদকমুক্ত রই’ জয়পুরহাটে সমবায়ীদের তোপের মুখে যুগ্মনিবন্ধক ডিএমপি কমিশনার হলেন অতিরিক্ত আইজিপি হাবিবুর রহমান উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্য কমিউনিটি স্বাস্থ্যসেবায় বৈশ্বিক সহায়তা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী সার্বিক স্বাস্থ্য উন্নয়নে বাংলাদেশ সরকারের প্রচেষ্টার প্রশংসা ‘হু’ প্রধানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে মার্কিন কাউন্সিলর ডেরেক শোলের সাক্ষাৎ বিএনপিকে নির্বাচনে আসার আহ্বান কৃষিমন্ত্রীর স্মার্ট বাংলাদেশ কেবল শেখ হাসিনার দ্বারাই সম্ভব : সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী অর্থ আত্নসাৎ, দুই বছর বেতন বাড়বে না সমাজসেবা কর্মকর্তার

মিরপুর ও উত্তরায় শ্রম অসন্তোষ নিরসনকল্পে শ্রম ভবনে ত্রিপক্ষীয় সভার প্রেস ব্রিফিং

সম্প্রতি মিরপুর ও উত্তরায় সংঘটিত পোশাক শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধির আন্দোলন নিরসনের লক্ষ্যে শ্রম অসন্তোষ বিষয় নিয়ে শ্রম ভবনে সোমবার এক সভা আয়োজন করেছে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীন কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক নৌপরিবহন মন্ত্রী ও শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য জনাব শাজাহান খান এমপি।

সভায় চট্টগ্রামের সীতাকুন্ডের বিএম কন্টেইনার ডিপো লিমিটেড কারখানায় অগ্নিদুর্ঘটনায় আহত ও নিহত পরিবারের প্রতি শোক ও সমবেদনা জ্ঞাপন করা হয়।

সভায় শাজাহান খান এমপি বলেন, “নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের ঊর্ধ্বগতিতে শ্রমজীবী মানুষের অসুবিধা রোধকল্পে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা কর্মরত পোশাক শ্রমিকদের মাঝে ‘কার্ড’ প্রদান করার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়েছেন। উক্ত কার্ড দিয়ে শ্রমিকরা স্বল্পমূল্যে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ক্রয় করার সুযোগ পাবেন। মাননীয় শ্রম প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এমপি দেশে ফেরার পর শ্রমিকদের মজুরি বৃদ্ধির লক্ষ্যে ‘নিম্নতম মজুরি বোর্ড’ গঠনের বিষয়ে স্বল্পতম সময়ের মধ্যে উদ্যোগ নেবেন।”

তিনি মঙ্গলবার থেকে কারখানা যথারীতি খোলা রাখাসহ এবং শ্রমিকদেরকে কাজে যোগ দেওয়ার আহ্বান জানান।

সভায় সভাপতিত্ব করেন কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক (যুগ্মসচিব) মিনা মাসুদ উজ্জামান। সভায় অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন বিজিএমইএ এর ফার্স্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট সৈয়দ নজরুল ইসলাম, জাতীয় শ্রমিক লীগের কার্যকরী সভাপতি মোঃ আলাউদ্দিন মিয়া, জাতীয় গার্মেন্ট শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি আমিরুল হক আমিন, গার্মেন্ট ট্রেড ইউনিয়ন সেন্টার-এর সভাপতি মন্টু ঘোষ, গার্মেন্টস শ্রমিক সমন্বয় পরিষদের সদস্য সচিব আবুল হোসেন, আইবিসির সদস্য সচিব রাশেদুল আলম রাজু, বাংলাদেশ জাতীয় গার্মেন্ট শ্রমিক কর্মচারী লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম রনি, শ্রমিক নেত্রী লীমা ফেরদৌস, লাভলী ইয়াসমিন, সুলতানা বেগম, মরিয়ম বেগম। এছাড়া শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর, বিকেএমইএ, শ্রমিকসংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ অন্যান্য স্টেকহোল্ডারগণ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

ইন্দোবাংলা/আর. এম

সংবাদ শেয়ার করুন

সতর্ক বার্তা

আমরা নিজস্ব সংবাদ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বে-আইনি। -ইন্দোবাংলা টীম।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ৩১ নির্দেশনা

© ইন্দোবাংলা২৪.কম সকল অধিকার সংরক্ষিত ২০২৩।
কারিগরি সহায়তায়: অল আইটি