বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১, ০২:৪১ অপরাহ্ন

ডিজিটাল দক্ষতা অর্জন করাই হবে আগামী সভ্যতার টিকে থাকর হাতিয়ার- টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী

ইন্দোবাংলা রিপোর্ট
  • আপডেট টাইম: ১৫ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ১৭৫ বার পঠিত
ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার । ছবিঃ ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, ডিজিটাল রূপান্তরের কারণে প্রচলিত প্রযুক্তিনির্ভর দক্ষতা আগামী দিনের পেশার কাজে লাগবেনা। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা, আইওটি, বিগডাটা, রোবটিকস, ব্লকচেইন ইত্যাদি প্রযুক্তির দক্ষতা অর্জন করাই হবে আগামী দিনের সভ্যতায় টিকে থাকার হাতিয়ার। এই লক্ষ্যে প্রচলিত পাঠ্যক্রম, পাঠদান পদ্ধতি ও প্রশিক্ষণের লক্ষ্য এবং উদ্দেশ্য নিরূপণসহ প্রশিক্ষণের আমূল পরিবর্তন করতে হবে।

মন্ত্রী আজ ঢাকায় বাংলাদেশ সচিবালয়ে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অধীন সকল দপ্তর, অধিদপ্তর, পরিদপ্তর, কল্যাণ ফাউন্ডেশন ও ইনস্টিটিউটসমূহে ই-ট্রেনিং ও সার্ভিস ম্যানেজমেন্ট প্ল্যাটফরম বাস্তবায়নের মাধ্যমে বহুমাত্রিক সেবার অনলাইন ভিত্তিক পরিচালনা, কেন্দ্রিয় মনিটরিং ব্যবস্থা, পর্যবেক্ষণ ও মূল্যায়ন সংক্রান্ত বিষয়ে টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেডের সাথে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অনলাইনে সংযুক্ত থেকে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: আখতার হোসেন, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব মো: আফজাল হোসেন, টেলিটক বাংলাদেশ লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো: সাহাব উদ্দিন ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আকতারুজ্জামান খান কবির অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন।

মন্ত্রী বলেন, ডিজিটাল প্রশিক্ষণ কার্যক্রম পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীকে সমাজের মূলধারায় সম্পৃক্ত করতে যুগান্তকারী একটি উদ্যোগ। এই উদ্যোগের সাথে টেলিটক প্রযুক্তিগত সমর্থন উদ্যোগটির সফলভাবে বাস্তবায়নে ভূমিকা রাখবে। এই ব্যাপারে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের বিটিসিএল, সাবমেরিন ক্যাবল কিংবা বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর সহযোগিতার প্রয়োজন হলেও আমরা সেক্ষেত্রেও ভূমিকা রাখতে পিছপা হবো না। বাংলাদেশে যাতে ডিজিটাল কোনো বৈষম্য না থাকে সে লক্ষ্যে সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে উল্লেখ করে দেশে কম্পিউটার বিপ্লবের অগ্রদূত মোস্তাফা জব্বার বলেন, মানুষের দোরগোড়ায় উচ্চগতির ইন্টারনেটে পৌঁছে দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুশাসন বাস্তবায়নে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ নিরলসভাবে কাজ করছে। তিনি বলেন, আমরা শুধু নেটওয়ার্কই পৌঁছে দেব না, দেশের সাধারণ মানুষের জন্য ডিজিটাল ডিভাইস সহজলভ্য করতে কাজ করছি।

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী ডিজিটাল প্রশিক্ষণ কর্মসূচির উদ্যোগ মন্ত্রণালয়ের জন্য একটি মাইলফলক বলে উল্লেখ করেন। তিনি দেশের তরুণ জনগোষ্ঠীকে দক্ষ মানব সম্পদ হিসেবে গড়ে তুলতে ডিজিটাল প্রশিক্ষণ সম্প্রসারণের প্রয়োজনীয়তার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

ইন্দোবাংলা/এম. আর

নিউজটি শেয়ার করুন


এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ