শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৭:০৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম:
পরামর্শক প্রতিষ্ঠানের সাথে চুক্তিপত্র স্বাক্ষর প্রধানমন্ত্রীর গতিশীল নেতৃত্বে করোনাকালেও দেশের প্রবৃদ্ধি এশিয়ায় প্রায় সবদেশের উপরে- তথ্যমন্ত্রী ইউপি চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা বরখাস্ত বীরাঙ্গনা স্বীকৃতি নিতে জালিয়াতির দায়ে মহিলা আ’লীগ নেত্রী বহিস্কার RCUWM এর বার্ষিক সভায় অংশগ্রহণ পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রীর কিশোরগঞ্জে নদী ভাঙন! নদী খোড়ার নামে মশকরা, নিঃস্ব হয়ে যাচ্ছে অসংখ্য পরিবার, দেখার কেউ নাই! লালমনিরহাটে স্বপ্নে পাওয়া নির্দেশে স্ত্রীকে ১৭ লাখ টাকায় হাতি উপহার- চট্টগ্রাম সিভিল সাজর্নসহ ১৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা চট্টগ্রাম ৭ ইউনিয়নে নৌকা টিকিট পেয়েছেন যারা কক্সবাজারের ৭শীর্ষস্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তাকে একসাথে বদলি

বিদ্যুৎ কেন্দ্র সচল করতে বড়পুকুরিয়ায় ১০০ টন করে কয়লা সরবরাহ করা হচ্ছে

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম: ২৮ জুলাই, ২০১৮
  • ১১৬১ বার পঠিত

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু বলেছেন, বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রটি আবার সচল করতে খনি কর্তৃপক্ষ শুক্রবার থেকে ১০০ টন করে কয়লা সরবরাহ শুরু করেছে।

আজ শনিবার সকালে বিদ্যুৎ ভবনে ‘বিদ্যুৎ খাতের প্রশিক্ষণ নীতিমালা চূড়ান্তকরণ এবং নেট মিটারিং নির্দেশিকা ২০১৮’ শীর্ষক এক কর্মশালার পর সাংবাদিকদের একথা বলেন নসরুল হামিদ।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিদ্যুৎ কেন্দ্রটি বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর সিরাজগঞ্জ বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হচ্ছে। এতে বিদ্যুতের ভোল্টেজ সমস্যা হচ্ছে। বর্তমানে দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা ১৮ হাজার মেগাওয়াটে পৌঁছেছে। এটি ২০২১ সালে ২৪ হাজার ও ২০৪১ সালে ৬০ হাজার মেগাওয়াটে উন্নীত হবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বিদ্যুৎ সচিব আহমদ কায়কাউস জানিয়েছেন, সরকার প্রয়োজনবোধে বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে সরকার কয়লা আমদানি করে রাখার পরিকল্পনা করছে। উত্তরাঞ্চলে পিক আওয়ারে এক থেকে দেড় ঘণ্টা বিভ্রাট হচ্ছে। তবে পরিস্থিতি সামলে এখন স্বাভাবিক হয়ে আসছে।

আয়োজিত কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-এলাহী চৌধুরি বলেন, সরকার দেশের উত্তারাঞ্চলে বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে আন্তরিকভাবে কাজ করছে।

বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির কয়লার ওপর ভিত্তি করে চলছিল ৫২৫ মেগাওয়াট ক্ষমতার বড়পুকুরিয়া তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রটি। খনির কয়লা চুরি হওয়ায় সেখান থেকে কয়লা সরবরাহ বন্ধ রয়েছে। এ কারণে গত রোববার রাতে বিদ্যুৎ কেন্দ্রটির সবকটি ইউনিটে উৎপাদন বন্ধ হওয়ায় উত্তরাঞ্চলে বিদ্যুৎ সঙ্কট চলছে।

২৩০ কোটি টাকা মূল্যের ১ লাখ ৪৪ হাজার ৬৪৪ মেট্রিক টন কয়লা উধাও হয়ে যাওয়ার ঘটনায় খনি কর্তৃপক্ষ বড়পুকুরিয়া কোল মাইনিং কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ ১৯ জনকে আসামি করে দুর্নীতি দমন আইনে অভিযোগ দায়ের করেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন


এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ