বুধবার, ১২ অগাস্ট ২০২০, ০৭:১৭ অপরাহ্ন

সর্বশেষ আপডেট :

ডিমলায় বানভাসিদের মাঝে চাউল বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদন
  • আপডেট টাইম: ৩ জুলাই, ২০২০
  • ৬৭ বার পঠিত

মোহাম্মদ আলী সানু, ডিমলা, নীলফামারী প্রতিনিধিঃ

বৈশ্বিক চলমান বন্যায় নীলফামারী ডিমলা উপজেলা ৯নং টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়নে চরখরিবাড়ী, পূর্বখরিবাড়ী, পশ্চিম খরিবাড়ী, উত্তর খরিবাড়ী, মৌজায় ৭টি ওয়ার্ড প্লাবিত হয়। যার ফলে ঐ অঞ্চলে পানিবন্দি হয় অনেকে। এর প্রাদূর্ভাবে ধানবীজ, তরী তরকারীর ফসল সহ ভেসে যায় গবাদিপশু। ঘর বাড়ী হাড়াতে হয় অনেককে। ইতিমধ্যে ঐ সব এলাকা পরিদর্শন করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার জয়শ্রী রানী রায় তাঁর সাথে ছিলেন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মেজবাহুর রহমান, উপ-সহকারী প্রকৌশলী ফেরদৌস আলম। উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানাগেছে, উক্ত বানভাসি গৃহ হাড়াদের মাঝে নগদ অর্থ ২ হাজার টাকা ও খাদ্য সামগ্রী বিতরন করা হয়।
সেই বন্যায় র্দূগত বানভাসি ৭ শত পরিবারের মাঝে ১৫ কেজি চাউল বিতরন করা হয়। শুক্রবার সকাল ১১টায় বাংলাদেশ সরকারের দূর্যোগ ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় অর্থায়নে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন (ত্রাণ) শাখা সহায়তায় টেপাখড়িবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ মাঠে এ চাউল বিতরন করা হয়।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, ইউপি চেয়ারম্যান ময়নুল হক, ট্যাগ অফিসার সুব্রত রায়, ইউপি সদস্য ইয়াসিন আলী, আরজ খান, রফিকুল ইসলাম, ইউপি সচিব গৌরঙ্গ রায়, মহিলা সদস্য মজিদা বেগম, ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের উদ্দ্যোক্তা মিজানুর রহমান।
বিতরণের পূর্বে চেয়ারম্যান উপকারভোগীদের উদ্দেশ্যে বলেন, দেশে চলমান অদৃশ্য করোনা ভাইরাস, যতদিন যাচ্ছে এর সংক্রমণ ততই বাড়ছে। লম্বা হচ্ছে মৃত্যের মিছিল আর এরই মধ্যে বন্যা এসে হাজির। বন্যার পানি নেমে গেলে পানিবাহিত রোগ হতে পারে এর জন্য সবাইকে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলা একান্ত জরুরী। তাই আসুন আমরা সবাই সচেতন হই।

নিউজটি শেয়ার করুন


এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..