সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:০২ অপরাহ্ন

হজ্জ নিয়ে কটূক্তি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা, যুবক গ্রেফতার

শেখর মজুমদার, জয়পুরহাট
  • আপডেট টাইম: বৃহস্পতিবার ২৬ নভেম্বর, ২০২০
  • ৩১৭ বার পঠিত

জয়পুরহাটে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে হজ্জ নিয়ে কটূক্তি করে কমেন্ট করার দায়ে সাজেদুর রহমান সুমন (২৭) নামের এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার সন্ধ্যায় শহরের কেন্দ্রীয় মসজিদ এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত সাজেদুর রহমান শহরের গুলশান মোড় এলাকার ইমরান হোসেনের ছেলে।

এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ২২ নভেম্বর রাত ১০ টার দিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ঔড়ুঢ়ঁৎযধঃ ঐবষঢ়ষরহব গ্রুপ এর সদস্য ঝঁসধরুধ অশঃযবৎ নামক ফেসবুক আইডি হতে “আসসালামু আলাইকুম, আমার ছেলে বয়স ৭ বছর। আমি মাদ্রাসা পড়াতে চাই। জয়পুরহাট ভালো ক্যাডেট জানতে চাই।” এমন পোস্ট করলে সাজেদুর রহমান সুমন নামের এক ব্যক্তি নিজ ফেসবুক আইডি (ঝধলবফঁৎ জধযসধহ ঝঁসধহ) থেকে “এখনকার যুগে কেউ মাদ্রাসাতে পড়াই… এই ২০২০ সালে এইসব ননসেন্স থিয়োরী মাথায় আসে কিভাবে? এগুলো মাথায় ঢুকায় দেয় কে? আরো কমেন্ট করে যে, হজ্জ অশিক্ষিত লোকজনই করে। সৌদি আরবের লোকজন হজ্জ এতো গুনে না। হজ্জ এতো গুরুত্বপূর্ণ না যে, এটা করতেই হবে। কেউ যদি করতে চায় সে করবে, না করলে কোন ব্যাপার”।“স্কুল কলেজের ছেলে মেয়েরা অবাধে মেলামেশা করছে এই ঘটনা কই পাইছেন? এমন কি এই সব ঘটনা কোন কম্বাইন স্কুলেও ঘটে নাই। ঘোড়ার আন্ডার খবর কই পান। মাদ্রাসা গুলো ভিডিও আপনি ফেসবুকেই দেখেছেন” সহ আরো অনেক লিখে কমেন্ট করে ফেসবুক আইডির মাধ্যমে মুসলমানের পবিত্র হজ্জ, মাদ্রাসা শিক্ষা ও কুরআন সংক্রান্ত অনুভূতিতে আঘাত করেছে। এসব কমেন্ট স্ক্রিনশট দিয়ে জয়পুরহাট থানায় মামলা দায়ের করেছেন জয়পুরহাট সিদ্দিকিয়া কামিল মডেল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মোঃ আব্দুল মতিন। এ ঘটনায় পুলিশ তদন্ত করে বুধবার সন্ধ্যায় সাজেদুর রহমানকে গ্রেফতার করে।

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে জয়পুরহাট থানার অফিসার ইনচার্জ এ.কে.এম আলমগীর জাহান জানান, সাজেদুর রহমান সুমনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১২ টার দিকে তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

ইন্দোবাংলা/সি.কে

নিউজটি শেয়ার করুন


এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ