সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:০১ অপরাহ্ন

সবাইকে আ’লীগের নৌকায় তোলার দরকার নেই, জয়পুরহাটের সম্মেলনে – তথ্যমন্ত্রী

মোয়াজ্জেম হোসেন, নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম: বৃহস্পতিবার ১০ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ২৩৬ বার পঠিত

আমাদেরকে সতর্ক থাকতে হবে আমরা যেহেতু পরপর তিনবার রাষ্ট্র ক্ষমতায়, এখন সবাই আ’লীগের নৌকায় উঠতে চায়। নৌকায় বেশি মানুষ উঠলে নৌকা ডুবে যায়। আমাদের এতো বেশি মানুষ দরকার নেই।

২০০১ সাল থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত যারা সংগঠন করেছে, ২১ বছর আমরা রাষ্ট্র ক্ষমতায় ছিলাম না তখন যারা বুকে পাথর দিয়ে সংগঠন করেছে সমস্ত রক্ত চক্ষু উপেক্ষা করে দল করেছেন তারাই নেতৃত্বের হাল ধরবে। যারা ক্ষমতার স্বাদ নেওয়ার জন্য নতুন করে আ’লীগের প্রবেশ করেছে তাদেরকে কোন ভাবেই নেতৃত্বের আসনে বসাতে পারিনা। সবাইকে আ’লীগের তোলার দরকার নেই।

বৃহস্পতিবার দুপুরে জয়পুরহাট স্টেডিয়ামে জেলা আ’লীগের সম্মেলনে প্রধান বক্তা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ এসব কথা বলেন।

দীর্ঘ ৬ বছর পর জয়পুরহাট জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন জয়পুরহাট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সম্মেলনে দলের সভানেত্রী শেখ হাসিনা ও কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের মতে নতুন সভাপতি আরিফুর রহমান রকেট, সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন নির্বাচিত করে নাম ঘোষনা করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমান।

এর আগে প্রধান অতিথি হিসাবে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ভার্চুয়াল বক্তব্য দেন। সাংগঠনিক সম্পাদক এস.এম কামাল হোসেন, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন হুইপ, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, নির্বাহী কমিটির সদস্য প্রফেসর মেরিনা জাহান কবিতা। সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন জেলা আ’লীগের সদ্য বিদায়ী সভাপতি এ্যাড. সামছুল আলম দুদু এমপি, অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন সদ্য বিদায়ী সাধারণ সম্পাদক এস.এম সোলায়মান আলী।

সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত প্রথম অধিবেশন শেষে দ্বিতীয় অধিবেশনে কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তে কাউন্সিলারদের সন্মতিতে ৩ বছরের জন্য নতুন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষনা করা হয়। আগামী ১৫ দিনের মধ্যে নতুন সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকের সমন্বয়ে পূর্ণাঙ্গ কমিটি প্রেরণ করার নিদেশ দেন কেন্দ্রীয় নেতারা। এদিকে দীর্ঘ প্রায় ১৫ বছর পর নতুন সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় জয়পুরহাটের আ’লীগের রাজনীতিতে নতুন মেরুকরণ হবে এমনই মনে করছেন স্থানীয়রা নেতাকর্মীরা।

ইন্দোবাংলা/এম. আর

নিউজটি শেয়ার করুন


এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ