সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৫১ অপরাহ্ন

কিশোরগঞ্জে ২য় বারের মত গরু পেলেন ঘানি টানা মোস্তাকিম তেলি

রউফুল আলম
  • আপডেট টাইম: বৃহস্পতিবার ১০ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ২০৫ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার:


গরুর ঘাড়ের জোয়াল মানুষের ঘাড়ে এমন বিস্ময়কর হৃদয় নিংড়ানো পেশা, কলুর বলদের মত নিজের ঘাড়ে ঘানির জোয়াল টেনে জীবিকা নির্বাহ করে আসতেছেন নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার বাহাগিলী ইউনিয়নের উত্তর দুরাকুটি পাগলাটারী গ্রামের মোস্তাকিম তেলি। ৭০ বছর বয়সি মোস্তাকিম তেলি বয়সের ভারে অনেকটাই শারীরিকভাবে অক্ষম হয়ে পড়লেও তেলের ঘানি টেনে ইঁদুর কপালির ভাগ্য বদলায় না।

তিনি দীর্ঘ চল্লিশ বছর ধরে গরুর অভাবে নিজের ঘাড়ে তেলের ঘানি টানছেন এবং স্ত্রী ছকিনা বেগম (৬০) তাকে এ কাজে সহায়তা করে আসছেন। হতদরিদ্র ওই দম্পতি প্রতিদিন ৫/৬ঘন্টা ঘানি টেনে যে পরিমাণ তেল ও খৈল উৎপাদন করেন তা বিক্রি করে চার সন্তান সহ ছয়জনের সংসার চালান তিনি। গত ২০শে সেপ্টেম্বর মোস্তাকিম তেলি ও স্ত্রী ছকিনা বেগমকে নিয়ে দৈনিক প্রথম খবর  সহ বেশ কয়েকটি প্রিন্ট পত্রিকায় মোস্তাকিম তেলি ও দম্পতি ছকিনা বেগম কে নিয়ে ২০শে সেপ্টেম্বর একটি সচিত্র প্রতিবেদন, প্রকাশিত হলে তা নজরে আসে নীলফামারী সদরের নিউ বাবু পাড়া হাড়োয়ার ডেইরি ফার্মের স্বত্বাধিকারী মোস্তফা কামালসহ কিশোরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ রোকসানা বেগম ও কিশোরগঞ্জ এপি ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশের। গত ২৬শে সেপ্টেম্বর ডেইরী ফার্মের মালিক মোস্তফা কামাল তাকে একটি আনুমানিক ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা মুলোর একটি গাভি প্রদান করেন। পরবর্তীতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ রোকসানা বেগমের পৃষ্ঠপোষকতায় মানবতার কল্যাণে নিয়োজিত ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ, কিশোরগঞ্জ এরিয়া প্রোগ্রাম অফিস দুঃস্থ-অভাবী, মানবতার ব্যথায় ব্যথিত হয়ে ঘাড় দিয়ে ঘানি টেনে তেল উৎপাদনকারী মোস্তাকিম তেলিকে কিশোরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে আনুষ্ঠানিকতার মধ্য দিয়ে ঘানি টানার জন্য আর একটি গরু প্রদান করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ রোকসানা বেগম, ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশের এরিয়া ম্যানেজার মি. পিকিং চাম্বুগং, প্রোগ্রাম অফিসার কৃষিবিদ মোঃ আমজাদ হোসেন, মি.শ্যামল মন্ডল, মি. মিন্টু বিশ্বাস, সানজিদা আনছারী, এমপি প্রতিনিধি রেজাউল আলম স্বপন, অনুসন্ধানকারী সংবাদ মাধ্যম কর্মী। এ আবেগঘন পরিবেশে গরু পেয়ে মোস্তাকিম তেলি আনন্দ অশ্রু ধরে রাখতে পারেনি। তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে মহান আল্লাহ পাকের কাছে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, সাংবাদিকসহ ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন।

নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে ইন্টিগ্রেটেড লাইভলিহুড টেকনিক্যাল প্রোগ্রাম এপি ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ কর্তৃক আয়োজিত উপজেলার মোস্তাকিম তেলির মতো পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রতি বছরের ন্যায় এবারো ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ, কিশোরগঞ্জ এরিয়া প্রোগ্রাম অফিস তাদের কর্ম এলাকার ৫টি ইউনিয়নের ২২৫টি হতদরিদ্র শিশু পরিবারের মাঝে সপ্তাহব্যাপী ৬০ লাখ ৭৫ হাজার টাকার বকনা গরু বিতরণ করবেন।

 

নিউজটি শেয়ার করুন


এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ