সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:০৪ অপরাহ্ন

রংপুরের ছাগল বাঁধাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের বসতবাড়িতে হামলা, আহত দুই

রউফুল আলম
  • আপডেট টাইম: শনিবার ১২ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ২৫৪ বার পঠিত

 

মোঃ খায়রুল আলম বিপ্লবঃ (রংপুর প্রতিনিধি:

রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলার আলমপুর ইউনিয়নের ফাজিলপুর গ্রামের শরুল্লা পাড়ায় ছাগল বাঁধা কে কেন্দ্র দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ , আহত হয়েছে দুই। পুলিশ ও অভিযোগসূত্রে জানা যায় শরুল্লা পাড়া গ্রামের কাছুয়া মামুদের পুত্র আব্দুল মজিদ এবং তার আপন বড় ভাই ছলিমুদ্দিনের সঙ্গে পারিবারিক কলোহের জের ধরে বিভিন্ন সময় ঝগড়া বিবাদ লেগে আছে। গত ০৪-১২-২০২০ ইং তারিখে আব্দুল জলিল তার বাড়ী থেকে বের হওয়ার জন্য বের হলে রাস্তার মধ্যে তার আপন ভাই একটি ছাগল বেঁধে রাখে। ছাগলটি সরানোর জন্য তার আপন বড় ভাইকে বললে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ছলিমুদ্দির স্ত্রী এসে আব্দুল মজিদের কলাট ধরে চড় থাপ্পড় মারে। পরে আমার স্ত্রী রিনা এসে সেখান থেকে আমাকে নিয়ে যায়। আমি ও আমার ছেলে রনি ইসলাম বাড়িতে না থাকার সুবাদে এরেই জেড় ধরে গত ০৬-১২-২০২০ তারিখে বিকাল অনুমান ৫.০০টায় পূর্ব হইতে পরিকল্পনা করিয়া আঞ্জুয়ারা বেগম তার ছেলে রাসেল ইসলাম, শাকিল, জুয়েল ও সাদিয়া আক্তারসহ আরো অনেকে দলবদ্ধ হইয়া আমার বাড়িতে প্রবেশ করিয়া হাতে লাঠি সুঠা নিয়ে আমার স্ত্রী ও মেয়ের উপর এলোপাতাড়ী মারডাং করে এবং আমার বাড়ীতে হামলা করে প্রায় ১ লক্ষ টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। তাদের হামলায় আমার দুই মেয়ে জুলি আক্তার ও ইতি আক্তার গুরুতর আহত হয় এবং ঘটনাস্থলে জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। ঘটনাস্থল থেকে তাদেরকে এলাকার লোকজন উদ্ধার করে উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। এ ব্যাপারে তারাগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযোগ পেয়ে তারাগঞ্জ থানার এস আই আসাদ ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করে এসেছে। এ ব্যাপারে তারাগঞ্জ থানার এসআই আসাদের সঙ্গে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলেন, ওছি স্যারের নির্দেশে তদন্ত করে এসেছি।

মো: খায়রুল আলম বপ্লিব

তারাগঞ্জ প্রতনিধিি

মোবাইল: ০১৯২৫৪৮১৪১০

নিউজটি শেয়ার করুন


এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ