রবিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২১, ০৫:০৯ অপরাহ্ন

সহিংসতা-সংঘর্ষ,অগ্নি সংযোগ” পটিয়ায় ৮নং ওয়ার্ডে প্রার্থীর ভাই নিহত ১,চন্দনাইশে আহত-১০

রউফুল আলম
  • আপডেট টাইম: রবিবার ১৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১৬৪ বার পঠিত

 

মোঃ শহিদুল ইসলা( শহিদ )বিভাগীয় প্রতিনিধি চট্টগ্রামঃ

পটিয়া পৌরসভার নির্বাচনে মেয়র পদে নৌকার মোঃ আইয়ুব বাবুল বিপুল ভোটে এগিয়ে রয়েছে বলে দলীয় নির্বাচনী এজেন্ট সূত্রে জানা গেছে। দক্ষিণ জেলার পৌরসভার নির্বাচনে সাবেক পৌর মেয়রও জাতীয় পাটির লাঙ্গল প্রতীকের মেয়র প্রার্থী শামসুল আলম মাষ্টার নিকটতম প্রাথী হিসেবে সুষ্ঠু, শান্তিপূর্র্ণ পরিবেশে নির্বাচনে তার জয়ী হবার ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
অন্যদিকে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী পৌর বিএনপির আহবায়ক ও সাবেক পৌর মেয়র নুরুল ইসলাম বিজয় হতে শেষ পর্যন্ত ভোটের মাঠে ছিলেন বলেন স্থানীয় পৌরবাসী জানান। তবে সকাল থেকে তাদের পোলিং এজেন্টদের কেন্দ্রে ঢুকতে না দেওয়ার অভিযোগ করেন। দুপুরের দিকে কোন কোন কেন্দ্রে এজেন্ট ডুকতে পারলে ও বাইরেলোক জড়ো করে তাদের ভোটাদের ভোটদিতে দেন নি বলে দলীয় সমর্থকরা জানিয়েছেন।ইসলামী ফ্রন্টের নেতা আলী হোসাইন (মোমবাতি)সমর্থকরা ওএকই অভিযোগ করেছেন।
উপজেলার নির্বাচন সহকারী রিটানিং অফিসার আরাফাত হোসাইন বলেন, পৌর নির্বাচনে প্রথম বারের মতো ইভিএমের পদ্ধতিতে হচ্ছে। নির্বাচনী সহিংসাতার ব্যাপারে তিনি জানাই, সকালে পটিয়া ১ টি ওয়ার্ডে কিছু বিশৃংখলা হলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটারগণ ভোট দিতে লাইনে দাড়াঁন। এর মধ্যে সকাল ৮টা দিকে দু’ই কাউন্সিলর সমর্থকদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ বাধে ,দুটি ককটেল বিষ্পোরণ হয়।
এছাড়া সর্বচেয়ে বেশী সংঘর্ষ হয় ৮নং ওয়ার্ডের ছিপাতলী কেন্দ্র্ । এই কেন্দ্রে সাবেক কাউন্সিলর আঃমান্নানের ছোটভাই আঃমাবুদ প্রতিপক্ষের ছুরির আঘাতে নিহত হন বলে জানা গেছে। এই খবর ছড়িয়ে পড়লে ৮নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর মান্নান ও কাউন্সিলর প্রার্থী ,মেয়র প্রার্থী জাপার সমর্থকদের মধ্যো দফায় দফায় হামলা,আনসার ক্যাম্পে অগ্নি সংযোগ হবার ঘটনা ঘটেছে নির্বাচন কমিশন সূত্রে জানা গেছে। এছাড়া ১নং ওয়ার্ডের একজন কাউন্সিলর প্রার্থীকে মাইক্রোবাসে করে তুলে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
পরে দুপুরের দিকে ফায়ার সার্ভিস ২টি ইউনিট এসে আগুন নিয়ন্ত্রন আনে।পরে পুলিশ,র্যা ব আসে ঘটনাস্থল তেকে ২জন কে আটক করে নিয়ে যাই পটিয়া থানায়। এদিকে চন্দনাইশ পৌরসভার নির্বাচনে ৩টি কেন্দ্রে দফায় দফায় সংঘর্ষে ১০জন আহত হয়েছেন বলে উপজেলা নির্বাচন সূত্রে নিশ্চিত করেন। অন্যান্য পৌর ভোটেও কম বেশী সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গেছে।
এই রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত কোন কেন্দ্রের চূড়ান্ত পাওয়া যাই নি। তবে ৮নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে(উঠপাখি) রাজিব,৩নংওয়ার্ডে- আবেদুজ্জামান আমেরী,৪নং ওযার্ডে(উঠপাখি) প্রতীকের প্রাথী আংশিক এগিয়ে রয়েছেন বলে জানা গেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন


এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ