শুক্রবার, ১৮ Jun ২০২১, ০৩:৩০ পূর্বাহ্ন

তারাগঞ্জে একই নামে দুইটি প্রকল্প দেখিয়ে ২ ল টাকা আত্মসাৎ

রউফুল আলম
  • আপডেট টাইম: মঙ্গলবার ২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৭৬ বার পঠিত

খায়রুল আলম বিপ্লব, রংপুর প্রতিনিধি:

তারাগঞ্জ উপজেলার সয়ার ইউনিয়নে বুড়িরহাট সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিশু শ্রেণির ঘর নির্মাণে একই নামে দুটি প্রকল্পের ২ (দুই) লাখ করে ৪ (চার) লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়ে দ্ইু লাখ টাকা আত্মসাৎ করা হয়েছে মর্মে অভিযোগ উঠেছে। উক্ত ইউনিয়ন চেয়ারম্যান কিরনের বিরুদ্ধে। জানা গেছে, ২০১৯-২০২০ অর্থবছরে ঐ বিদ্যালয়ের শিশু শ্রেণির ঘর নির্মাণে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি আওতায় দুই লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। বরাদ্দ অনুযায়ী উপজেলা প্রকৌশলী অধিদপ্তরের দেয়া প্লান ও ইস্টিমেট অনুযায়ী ঘরটি নির্মাণ করা হয়। একই অর্থবছরে উক্ত বিদ্যালয়ে এলজিএসপির প্রকল্প থেকে দুই লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। ঐ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সিরাজুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বলেন, শ্রেণিকক্ষ সংকটের কারনে চেয়ারম্যানের নিকট একটি শিশুশ্রেণির ঘর নির্মাণের আবেদন করেছিলাম। চেয়ারম্যান ইতিমধ্যে ঘরটি নির্মাণ করে দিয়েছে। কোন খাতে বরাদ্দ সেটি আমার জানা নেই। এডিপি প্রকল্পের সভাপতি অহিদুল ইসলামের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন আমাকে নামে মাত্র প্রকল্প সভাপতি করা হয়েছে। চেয়ারম্যান (কিরণ) আমার কাছ থেকে খোলা চেকে সাক্ষর নিয়ে টাকা উত্তোলণ করে তিনি নিজেই নিয়েছেন। উক্ত ইউনিয়নের সচিব মুসা মন্ডলের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, চেয়ারম্যান সাহেব এলজিএসপির টাকা দিয়ে উক্ত ঘরটি নির্মাণ করেছেন এডিপির অর্থ দিয়ে নয়। নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছিক কয়েকজন ইউপি সদস্য বলেন, এডিপির অর্থ দিয়ে ঘরটি করা হয়েছে কিন্তু এলজিএসপির অর্থ দিয়ে নয়। উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ তদন্ত করলে ঘটনার সত্যতা পাবেন। ইউপি চেয়ারম্যান কিরণের মুঠোফোনে ফোন দিয়ে এই বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি কথা না বলে মুঠোফোনটি কেটে দেয়।

রংপুর প্রতিনিধি
০১৭২২১৬১৬৬৪

নিউজটি শেয়ার করুন


এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ