শনিবার, ৩১ Jul ২০২১, ০৭:১১ অপরাহ্ন

নিবন্ধন বিহীন পোর্টালে প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

শেখর মজুমদার, নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম: শুক্রবার ৭ মে, ২০২১
  • ৩৬৫ বার পঠিত

গত ৬ই মে, ২০২১ইং তারিখে জয়পুরহাটের দৈনিক তুলশীগঙ্গা নামে একটি সরকারি নিবন্ধন বিহীন অনলাইন পোর্টালে “জয়পুরহাটে বাংলাটিভির সাংবাদিক রেজাসহ ৬ জনের নামে আদালতে চাঁদাবাজি মামলা” শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদটি আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে।

অদ্যেও সত্য ঘটনা হচ্ছে, সকল তথ্য, উপাত্ত ও ভিডিও বক্তব্য সহ বাংলা টিভিতে ২৮ এপ্রিল, ২০২১ ইং তারিখে শহীদ আব্দুল জোব্বার মঙ্গলবাড়ি মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় ও কলেজ এর প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম আজাদের বিরুদ্ধে নানা অনিয়ম, দুর্নীতি ও নারী কেলেঙ্কারী সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন প্রচারিত হয়েছে। তার আগে স্থানীয়দের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট দপ্তর, উক্ত আবুল কালাম আজাদের বিরুদ্ধে তদন্ত কমিটি গঠিত হয় এবং ওই কমিটির তদন্ত চলমান রয়েছে। উক্ত তদন্তকে বাঁধাগ্রস্থ ও অন্যভাবে প্রভাবিত করে ধামাচাপা দেওয়ার জন্য তার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের দুইজন ও অন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের তিন জন শিক্ষক ও আমি সহ মোট ৬ জনের বিরুদ্ধে জয়পুরহাট আদালতে একটি পিটিশন মামলা দায়ের করেছে ওই প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ। পিটিশন মামলাটি তদন্ত করে সংশ্লিষ্ট থানার ওসিকে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

এরপর উদ্দেশ্য প্রণোদিত ভাবে ব্যক্তি আক্রোশ ও পেশাগত দ্বন্দের জের ধরে দৈনিক তুলসীগঙ্গায় শুধুমাত্র ৬জন আসামীর মধ্যে আমার ছবি ব্যবহার করে এবং আমার কোন বক্তব্য না নিয়ে একটি সংবাদ প্রকাশিত করেন। তাতে ঘটনা দেখানো হয়েছে জয়পুরহাট থানার পূর্বে সন্নিকটে পৃথিবী কমপ্লেক্সের সামনে শহরের একটি গুরুত্বপূর্ণ ব্যস্ততম ব্যণিজ্যিক এলাকায় দ্বিতীয় তলার জয়পুরহাট সাংবাদিক ইউনিয়নের অফিসে। যেখানে ইউনিয়নের সাংবাদিকরা অবস্থান করেন এবং সবসময় সংবাদ বিভিন্ন গণমাধ্যমে পাঠিয়ে থাকেন। সেখানে নওগাঁর ধামইরহাট মঙ্গলবাড়ি এলাকা থেকে উক্ত প্রধান শিক্ষককে ডেকে নিয়ে এসে ৫ জন শিক্ষক ও আমি সহ ২ লক্ষ টাকা চাঁদা চাওয়া হয়েছে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে। যা এখানকার কোন সাংবাদিক বা পাশের আরও দুটি অফিসের কোন ব্যক্তিই জানেন না এবং অফিসের নিচে ব্যস্ততম চায়ের দোকান ও আশপাশের অসংখ্য ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের কেউই বিষয়টি জানেন না। আদ্যেও ওই মামলার বাদী, স্বাক্ষীদ্বয় এবং আমার সঙ্গে অপর ৫ জন আসামী কোন দিনই এই জয়পুরহাট সাংবাদিক ইউনিয়নের অফিসে আসে নাই। কোন প্রমাণই নেই। প্রয়োজনে অফিস এলাকার জয়পুরহাট পৌরসভার সিসি ক্যামেরা পর্যবেক্ষণ করে সংশ্লিষ্টদের দেখার অনুরোধ করা হলো। আদ্যেও উক্ত মামলার ঘটনাটি সম্পর্ণ সাজানো, মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।

আমাকে সাংবাদিকতা পেশায় হয়রানি এবং আমার সামাজিক সম্মানক্ষুন্ন করার অপচেষ্ঠায় আমার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত ও কতিপয় প্রতিপক্ষ দ্বারা প্রভাবিত হয়ে অত্র মিথ্যা ও ভিত্তিহীন মামলা এবং সংবাদ প্রকাশ করেছে।

আমি উক্ত মিথ্যা, ভিত্তিহীন, বানোয়াট ও উদ্দ্যেশ্য প্রনোদিত মামলা এবং সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সেই সাথে সরকারের অনিবন্ধিত দৈনিক তুলসীগঙ্গা পোর্টালটির বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের আবেদন জানাচ্ছি।

নিবেদক-
রেজাউল করিম রেজা
বাংলা টিভি, জেলা প্রতিনিধি, জয়পুরহাট

সাধারণ সম্পাদক
জয়পুরহাট সাংবাদিক ইউনিয়ন (জেইউজে)
মোবাইলঃ ০১৭১৬৫৭৪০৪০

নিউজটি শেয়ার করুন


এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ