বুধবার, ২৮ Jul ২০২১, ১২:৫৩ অপরাহ্ন

বুয়েটে উইকি ফর ক্লাইমেট বিষয়ক বাংলা উইকিপিডিয়া কর্মশালা

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম: শুক্রবার ৩০ এপ্রিল, ২০২১
  • ৬০ বার পঠিত

জলবায়ু পরিবর্তন এবং পরিবেশ ও মানুষের উপর এর প্রভাব নিয়ে অনলাইনের বৃহত্তম বিশ্বকোষ উইকিপিডিয়ায় তথ্য বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বুয়েট) একটি অনলাইন কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ২৯ এপ্রিল এনভায়রনমেন্ট ওয়াচ: বুয়েট ক্লাবের সহযোগিতায় উইকিমিডিয়া বাংলাদেশ আয়োজিত এ কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন বুয়েটের শিক্ষার্থীরা।

নিরাপদ, স্বাস্থ্যকর এবং টেকসই পরিবেশ প্রাপ্তি সকলের অধিকার। কিন্তু জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে বিশ্বব্যাপী এ সবকিছুর উপরেই বিরূপ প্রভাব পড়ছে। এ ক্ষেত্রে যেকোনো পদক্ষেপ গ্রহণের অন্যতম পূর্বশর্ত যথাযথ তথ্যপ্রাপ্তি। গত ২২ এপ্রিল বিশ্ব ধরিত্রী দিবসকে কেন্দ্র করে বিশ্বব্যাপী “স্বাস্থ্যকর পরিবেশের অধিকার” স্লোগানে আয়োজিত হচ্ছে নানান কর্মসূচী। এ সকল কর্মসূচীর উদ্দেশ্য উইকিপিডিয়ায় প্রয়োজনীয় তথ্য যোগ করা, যেন মানুষ নির্ভরযোগ্য তথ্য পেতে পারেন। এর ধারাবাহিকতায় বুয়েটে আয়োজিত হয় ‘উইকি ফর ক্লাইমেট: বাংলা উইকিপিডিয়া কর্মশালা’।

কর্মশালায় কীভাবে বিশ্বের বৃহত্তম বিশ্বকোষ উইকিপিডিয়া কাজ করে, কীভাবে উইকিপিডিয়ায় প্রয়োজনীয় তথ্য যোগ করার মাধ্যমে যে কেউ ভূমিকা রাখতে পারেন – এসব নিয়ে আলোচনা করা হয়। চলমান কোভিড-১৯ এর বৈশ্বিক মহামারীর কারণে অনলাইনেই কর্মশালাটি অনুষ্ঠিত হয়। উইকিমিডিয়া বাংলাদেশের পক্ষ থেকে কর্মশালা পরিচালনা করেন অংকন ঘোষ দস্তিদার।

কর্মশালার পরে অংশগ্রহণকারীরা বাংলা উইকিপিডিয়ায় জলবায়ু পরিবর্তন, পরিবেশে এর প্রভাব, প্রভৃতি বিষয়ে নির্দিষ্ট তালিকা থেকে নিবন্ধ তৈরি করছেন। আয়োজকদল জানান, “এ সমস্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে নিবন্ধ তৈরির ফলে মানুষ সহজেই নিজ মাতৃভাষায় তথ্য পাবেন এবং তাদের মধ্যে সচেতনতা তৈরি হবে। এর মাধ্যমে আগামীতে যেকোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও বিপর্যয় মোকাবেলায় অধিক কার্যকরী পদক্ষেপ রাখা সম্ভব হবে বলে আমরা মনে করি।”

আগামী ১০ মে পর্যন্ত বাংলা উইকিপিডিয়ায় সুনির্দিষ্ট বিষয়ে নিবন্ধ তৈরির এ কার্যক্রম, তথা এডিটাথনটি চলবে। বিস্তারিত: https://bn.wikipedia.org/s/e3sy

উল্লেখ্য যে, প্রতি মাসে বিশ্বব্যাপী আড়াই কোটিরও বেশি মানুষ বাংলা উইকিপিডিয়া পড়ে থাকেন। গড়ে হাজারের বেশি স্বেচ্ছাসেবক প্রতিমাসে বাংলা উইকিপিডিয়ায় অবদান রাখেন। জ্ঞান-বিজ্ঞানের সকল শাখা সম্পর্কেই তথ্য রয়েছে এখানে। ইন্টারনেট সংযোগ আছে এমন যে কেউ যেকোনো স্থান থেকে এই তথ্য আহরণ করতে পারেন, একই সাথে অবদানও রাখতে পারেন।

ইন্দোবাংলা/মাহফুজ/চম্পক/আর. পি

নিউজটি শেয়ার করুন


এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ