শনিবার, ৩১ Jul ২০২১, ০৬:৩৫ অপরাহ্ন

২০৪০ সালের মধ্যে তামাকমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে কাজ করছে সরকার-যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
  • আপডেট টাইম: বৃহস্পতিবার ২৭ মে, ২০২১
  • ৩১ বার পঠিত
ছবিঃ সংগৃহীত

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে ২০৪০ সালের মধ্যে তামাকমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে কাজ করে যাচ্ছে সরকার। প্রতিমন্ত্রী আজ টোবাকো কন্ট্রোল প্রজেক্ট ও ডেভেলপমেন্ট জার্নালিস্ট ফোরাম অব বাংলাদেশ কর্তৃক আয়োজিত ‘তামাকে কর বৃদ্ধি ও তামাক থেকে যুব সমাজকে রক্ষা বিষয়ক’ ওয়েবিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশের প্রায় এক-তৃতীয়াংশ যুবসমাজ। বর্তমান সরকারের ভিশন-২০২১, ভিশন-২০৪১ এবং জাতিসংঘ ঘোষিত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জনেও জনসংখ্যার সর্বাপেক্ষা সৃজনশীল ও উদ্যমী অংশ হিসেবে এ যুবকদের অংশগ্রহণের কোনো বিকল্প নেই। কিন্তু দুঃখের বিষয় এই জনগোষ্ঠির একটা বড় অংশ আজ তামাক বা মাদকে আসক্ত। তামাক জীবনের জন্য অত্যাবশ্যকীয় কিছু তো নয়ই, বরং এর বহুল ব্যবহার জনস্বাস্থ্য ও অর্থনীতি উভয়ের জন্যই মারাত্মক ক্ষতিকর। আর তাই জাতীয় বাজেটে তামাকের উপর কর বৃদ্ধির মাধ্যমে যুবসমাজকে তামাক সেবনে নিরুৎসাহিত করতে হবে।

যুবসমাজকে তামাক ও মাদক থেকে দুরে রাখতে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, যুবসমাজ যাতে বিপথগামী না হয়, সুস্থ সংস্কৃতি ও ক্রীড়া চর্চার সুযোগ করে দিতে দেশের প্রতিটি উপজেলায় শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম নির্মাণ করা হচ্ছে। পাশাপাশি যুবসমাজকে আত্নকর্মসংস্থানে নিয়োজিত করতে প্রতিটি উপজেলায় যুব প্রশিক্ষন ও বিনোদন কেন্দ্র নির্মাণ করার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এখানে মিনি থিয়েটারসহ সুস্হ সংস্কৃতির ব্যবস্হা থাকবে।

ডেভেলপমেন্ট জার্নালিস্ট ফোরাম অব বাংলাদেশের সভাপতি এফ এইচ এম হুমায়ুন কবীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য প্রদান করেন সংসদ সদস্য অধ্যাপক এম এ মতিন ও বাংলাদেশ পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য ড. শামসুল আলম।

ইন্দোবাংলা/আর. কে

নিউজটি শেয়ার করুন


এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ