সোমবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:০৮ অপরাহ্ন

ভূয়া প্রতিষ্ঠান খুলে প্রতারণা করে ১৪৫ কোটি টাকা আত্মসাৎ, নওগাঁয় গ্রেফতার ৩

ইন্দোবাংলা প্রতিনিধি, নওগাঁ
  • আপডেট টাইম: শুক্রবার ২৮ মে, ২০২১
  • ১৮৮ বার পঠিত

রেজিঃ বিহীন ভূয়া একুশে প্রতিষ্ঠানের নামে ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুলে প্রতারণামূলক ভাবে ১৪৫কোটি টাকা আত্মসাৎ করে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে পালিয়ে থাকা প্রতারক চক্রের অন্যতম ৩সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ।

গত ২৫ মে/২০২১ মঙ্গলবার টঙ্গী পশ্চিম থানা পুলিশ আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে নওগাঁর পত্নীতলায় আসে এবং পত্নীতলা থানা পুলিশের সহযোগীতায় ২৬ মে/২০২১ বুধবার ভোরে উপজেলা সদর নজিপুর মাদ্রাসা পাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে জনৈক কামরুজ্জামান কামালের বাড়িতে ভাড়া নিয়ে আত্মগোপনে থাকা প্রতারক চক্রের অন্যতম দুই সদস্য ফললুল কাজী কাদের শাকিল (৩২) ও মাহবুব আলম (৪৪) কে নগদ ২লক্ষ ৫ হাজার টাকা এবং ৫টি বাটন মোবাইল সহ গ্রেফতার করে।

এসময় গ্রেফতারকৃত ফললুল কাজী কাদের শাকিলের দেওয়া তথ্য অনুসারে তার স্ত্রী সুলতানা খাতুন শিমলা (২০)কেও রাজশাহী জেলার চন্দ্রিমা থানার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কৃষি অনুষদ সংলগ্ন এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত আসামী ফললুল কাজী কাদের শাকিল বগুড়ার কাহালু থানা এলাকার মৃত জিল্লুর রহমানের ছেলে, মাহবুব আলম রাজশাহী জেলার বাগমারা থানার বুজরুক কৌড় এলাকার দেওয়ান মোহাম্মদ আহাদুল ইসলামের ছেলে এবং ফললুল কাজী কাদের শাকিলের স্ত্রী সুলতানা খাতুন শিমলা রাজশাহী জেলার চন্দ্রিমা থানার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কৃষি অনুষদ সংলগ্ন নারিকেল বাড়িয়া এলাকার কালু শেখের মেয়ে।

শুক্রবার টঙ্গী থানা পুলিশের পক্ষ থেকে প্রেরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গত জুলাই/২০২০ গাজীপুর জেলার গাছা থানাধীন বড়বাড়ী বড়মসজিদের পার্শ্বে রেজিঃ বিহীন ভূয়া একুশে প্রতিষ্ঠানের নামে একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান খুলে উক্ত গ্রেফতারকৃত আসামীগণসহ অন্যান্য গ্রেফতারকৃত এবং পলাতক আসামীগণ নানা পদের পরিচয় দিয়ে অনেক মহিলাদের কাছ থেকে বিভিন্ন অংকের টাকা নিয়ে উক্ত প্রতিষ্ঠানের মাসিক বেতন হিসেবে চাকুরীর কথা বলে বিপুল সংখ্যক মহিলা কর্মী নিয়োগ দেয়। পরবর্তীতে উক্ত স্থানে প্রতিষ্ঠান পরিচালনা নিয়ে সমস্যা দেখা দিলে গত ৭ সেপ্টেম্বর/২০২০ তারিখে মামলার এজাহারভূক্ত আসামীগণ টঙ্গী পশ্চিম থানাধীন হোসেন মার্কেট ইউনাইটেড শপিং কমপ্লেক্সের ৫ম তলা ভাড়া নিয়ে রেজিঃ বিহীন ভূয়া একুশে নামে প্রতিষ্ঠান খুলে পূনরায় পন্য কেনা-বেচা সহ অন্যান্য কার্যক্রম চালায় এবং অধিক মুনাফার কথা বলে আনুঃ ৩হাজার মহিলা কর্মীদের কাছ থেকে সর্বমোট ১শ ৪৫ কোটি টাকা প্রতারণা মূলক ভাবে আত্মসাৎ করে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে তারা পালিয়ে যায়।

এঘটনায় টঙ্গী পশ্চিম থানায় জনৈক নিশি বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করে। মামলা নং-২৬, তাং- ২৭/০৯/২০২০ইং। ধারা-৪০৬/৪২০/১০৯ পেনাল কোড।

উক্ত মামলার প্রেক্ষিতে উপ-পুলিশ কমিশনার অপরাধ (দক্ষিণ) ইলতুত্ মিশ এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে এবং টঙ্গী পশ্চিম থানার অফিসার ইনচার্জ শাহ-আলমের দিকনির্দেশনা মোাতাবেক গত ২৫মে/২০২১ তারিখে মামলার তদন্তকারী অফিসার এস.আই (নিঃ) সাব্বির হোসেন সহ সঙ্গীয় ফোর্স আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে নওগাঁ জেলার পত্নীতলায় আসে এবং পত্নীতলা থানা পুলিশের সহযোগীতায় বুধবার ভোরে উপজেলা সদর নজিপুর মাদ্রাসা পাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে জনৈক কামরুজ্জামান কামালের বাড়িতে ভাড়া নিয়ে আত্মগোপনে থাকা এজাহারভূক্ত আসামী প্রতারক চক্রের অন্যতম দুই সদস্য ফললুল কাজী কাদের শাকিল (৩২) ও মাহবুব আলম (৪৪) কে নগদ ২লক্ষ ৫ হাজার টাকা এবং ৫টি বাটন মোবাইল সহ গ্রেফতার করে পুলিশ।

এসময় গ্রেফতারকৃত ফললুল কাজী কাদের শাকিলের দেওয়া তথ্য অনুসারে রাজশাহী জেলার চন্দ্রিমা থানার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কৃষি অনুষদ সংলগ্ন এলাকা থেকে তার স্ত্রী সুলতানা খাতুন শিমলাকেও গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ আরো জানায়, উক্ত আসামীরা পরষ্পর যোগসাজশে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ভূয়া প্রতিষ্ঠান খুলে প্রতারনা মূলকভাবে বিভিন্ন অংকের টাকা আত্মসাৎ করে নিজেরদের আত্মগোপন করে রাখে। তাদের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।

ইন্দোবাংলা/আর. কে

নিউজটি শেয়ার করুন


এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ