বৃহস্পতিবার, ১৭ Jun ২০২১, ০১:০২ পূর্বাহ্ন

প্রকাশ চন্দ্র রায়’র জোড়া কবিতা

রউফুল আলম, উপ-সম্পাদক
  • আপডেট টাইম: শনিবার ১ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ৪৯১ বার পঠিত

প্রকাশ চন্দ্র রায়’র জোড়া কবিতা

চৈতালী

হৃদয় দুয়ার খোলাই ছিল,
ফাগুন হাওয়াও বইছিল
অষ্টপ্রহর:
ডাকছিল কোকিল দিনেরাতে,
মন বাগানের হরিৎ গাছে ।
শিমুল পলাশ হাতে নিয়ে
অত্যুগ্র প্রত্যাশায়,
অপেক্ষায় ছিলাম চাতকপ্রায়;
মনমঞ্জুষা ঢেলে দিতে আসবে বলে,
অদম্য কৌতুহলে কাটছিল
দুরন্ত সময় ।
আসোনি কখনও সম্মুখ পথে,
বসোনি কাছে কোন সে অশঙ্কাতে!
ভুল কিছু ফুল ছুঁড়েছিলে
মাঝে মাঝে-
উৎসুক হৃদয়ের বাতায়ন পথে ।
ফাল্গুন চৈত্র তো কবেই
হয়েছে গত,
বসন্ত বাতাসও বহে না
এখন আর;
শিমুল পলাশ ঝরে গেছে
সময়ের আগে,
উড়ে গেছে সুকণ্ঠী
কোকিলের ঝাঁক ।
আমার পৃথিবীতে এখন
প্রত্যহ বহে
কাল বৈশাখী ঝড়…
চৈতালী তুমি একটিবারও
নিলে না খবর!
কোথায় আছি কেমন আছি,
কেমন করে একা একা
কাঁটছে প্রহর !

প্রণয়-প্রপাত

প্রণয় প্রপাত আমার,
নায়াগ্রার অধিক প্রেম ঢালে
প্রত্যহ তোমার বুকে,
প্রণত-প্রত্যয়ে ।
তোমার বিস্তীর্ণ বুক চিরে,
নদ-নদী উপনদী বেয়ে,
ধেয়ে চলে বঙ্গোপসাগর
অভিমুখে ;
অতপর নীলাক্ত হয় সাগর
সঙ্গমে ।

সূর্যতাপে উত্তপ্ত প্রণয় ক্রমশ
বাষ্প হয়ে উবে যায়,
আকাশের বুকে জমে
কালোমেঘ ।
আসে আষাঢ় শ্রাবণ,
ঝর-ঝর-ঝর…
ঝরে পড়ে প্রণয় আমার,
সুখে সুখে-তোমার বুকে ।

তুমি স্বদেশ আমার
প্রিয় জন্মভূমি,
তোমার শ্রীচরণ চুমি,
ধন্য হয় প্রণয় আমার ।

নিউজটি শেয়ার করুন


এই ক্যাটাগরীর আরো খবর..

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পরামর্শ