রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:৪০ পূর্বাহ্ন

সরকারি জরুরি হটলাইন

সরকারি তথ্য ও সেবা-৩৩৩, জরুরি সেবা-৯৯৯, নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে-১০৯, দুদক-১০৬, দুর্যোগের আগাম বার্তা-১০৯০, শিশুর সহায়তায় ফোন-১০৯৮, ভূমির সেবা পেতে...অভিযোগ জানাতে-১৬১২২, ই-জিপি জরুরি হেল্পলাইন-১৬৫৭৫, নৌপরিবহনের হেল্পলাইন-১৬১১৩। তথ্য সুত্র : পিআইডি

শিরোনাম
মানুষ এখন শখ করে পান্তা ভাত খায় : খাদ্যমন্ত্রী ‘স্মার্ট বাংলাদেশের অংশীদার হই, বাল্যবিবাহ, ইভটিজিং ও মাদকমুক্ত রই’ জয়পুরহাটে সমবায়ীদের তোপের মুখে যুগ্মনিবন্ধক ডিএমপি কমিশনার হলেন অতিরিক্ত আইজিপি হাবিবুর রহমান উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্য কমিউনিটি স্বাস্থ্যসেবায় বৈশ্বিক সহায়তা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী সার্বিক স্বাস্থ্য উন্নয়নে বাংলাদেশ সরকারের প্রচেষ্টার প্রশংসা ‘হু’ প্রধানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে মার্কিন কাউন্সিলর ডেরেক শোলের সাক্ষাৎ বিএনপিকে নির্বাচনে আসার আহ্বান কৃষিমন্ত্রীর স্মার্ট বাংলাদেশ কেবল শেখ হাসিনার দ্বারাই সম্ভব : সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী অর্থ আত্নসাৎ, দুই বছর বেতন বাড়বে না সমাজসেবা কর্মকর্তার

বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ কামাল দেশপ্রেমিক, সৎ, সাহসী ও দক্ষ সংগঠক ছিলেন- বাণিজ্যমন্ত্রী

ছবি: ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল ছিলেন সৎ, সাহসী ও দক্ষ সংগঠক। রাজনীতির পাশাপাশি শেখ কামাল দেশের ক্রীড়াঙ্গন ও সংস্কৃতি জগতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে গেছেন। ভালো ও দক্ষ সংগঠক হিসেবে শেখ কামালের ব্যাপক পরিচিতি রয়েছে। আবাহনী ক্রীড়াচক্র শেখ কামালের নিজের হাতে গড়া সংগঠন। শুধু রাজনৈতিক কারণে তাঁর চরিত্র হরণের অনেক অপচেষ্টা করা হয়েছে। শেখ কামাল ছিলেন সৎ এবং সাহসী। ন্যায়ের পক্ষে তাঁর অবস্থান ছিল সুদৃঢ়।

মন্ত্রী শুক্রবার ঢাকায় ধানমন্ডি সুলতানা কামাল মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ পুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল এর ৭৩তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, ‘মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় শেখ কামালসহ একই ক্যাম্পে ট্রেনিং করার সৌভাগ্য হয়েছিল আমার। তিনি একজন দক্ষ সেনা কর্মকর্তা ছিলেন। দেশ স্বাধীন হবার পর আমি খুব কাছে থেকে তাঁর সততা ও সাহসিকতা দেখেছি। তাঁর মতো নেতা এবং সাহসী সংগঠক খুব কমই দেখা যায়। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ইতিহাসের নির্মম হত্যাকাণ্ডের সময় শেখ কামালকে প্রথম হত্যা করা হয়েছিল। দেশের রাজনীতি, ক্রীড়াঙ্গন এবং সংস্কৃতি জগতে বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল স্মরণীয় হয়ে থাকবেন।’

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ ট্রেড এন্ড টেরিফ কমিশনের চেয়ারম্যান (সচিব) মাহফুজা আখতার, বাংলাদেশ কম্পিটিশন কমিশনের চেয়ারপারসন মো. মফিজুল ইসলাম, বাংলাদেশ ফরেন ট্রেড ইনস্টিটিউট এর প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ড. মোঃ জাফর উদ্দিন, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস চেয়ারম্যান এ এইচ এম আহসান, আমদানি ও রপ্তানি প্রধান নিয়ন্ত্রকের দপ্তরের প্রধান নিয়ন্ত্রক শেখ রফিকুল ইসলাম, জয়েন্ট স্টক কোম্পানি এন্ড ফার্মসসমূহের প্রধান নিয়ন্ত্রক শেখ সোয়েবুল আলম মজুমদার, জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের মহাপরিচালক এ এইচ এম শফিকুজ্জামান, ট্রেডিং করপোরেশন অভ্ বাংলাদেশ (টিসিবি) এর চেয়ারম্যান ব্রি জে মোঃ আরিফুল হাসান।

এর আগে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি’র নেতৃত্বে বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও এর অধীনস্ত বিভাগসমূহের প্রধান এবং কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ আবাহনী খেলার মাঠে বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল এর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। আলোচনা সভা শেষে বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তাঁর পরিবারের শহিদ সদস্যদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া করা হয়।

ইন্দোবাংলা/আর. কে

সংবাদ শেয়ার করুন

সতর্ক বার্তা

আমরা নিজস্ব সংবাদ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বে-আইনি। -ইন্দোবাংলা টীম।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ৩১ নির্দেশনা

© ইন্দোবাংলা২৪.কম সকল অধিকার সংরক্ষিত ২০২৩।
কারিগরি সহায়তায়: অল আইটি