বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৩:১৩ অপরাহ্ন

সরকারি জরুরি হটলাইন

সরকারি তথ্য ও সেবা-৩৩৩, জরুরি সেবা-৯৯৯, নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে-১০৯, দুদক-১০৬, দুর্যোগের আগাম বার্তা-১০৯০, শিশুর সহায়তায় ফোন-১০৯৮, ভূমির সেবা পেতে...অভিযোগ জানাতে-১৬১২২, ই-জিপি জরুরি হেল্পলাইন-১৬৫৭৫, নৌপরিবহনের হেল্পলাইন-১৬১১৩। তথ্য সুত্র : পিআইডি

শিরোনাম
মানুষ এখন শখ করে পান্তা ভাত খায় : খাদ্যমন্ত্রী ‘স্মার্ট বাংলাদেশের অংশীদার হই, বাল্যবিবাহ, ইভটিজিং ও মাদকমুক্ত রই’ জয়পুরহাটে সমবায়ীদের তোপের মুখে যুগ্মনিবন্ধক ডিএমপি কমিশনার হলেন অতিরিক্ত আইজিপি হাবিবুর রহমান উন্নয়নশীল দেশগুলোর জন্য কমিউনিটি স্বাস্থ্যসেবায় বৈশ্বিক সহায়তা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী সার্বিক স্বাস্থ্য উন্নয়নে বাংলাদেশ সরকারের প্রচেষ্টার প্রশংসা ‘হু’ প্রধানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে মার্কিন কাউন্সিলর ডেরেক শোলের সাক্ষাৎ বিএনপিকে নির্বাচনে আসার আহ্বান কৃষিমন্ত্রীর স্মার্ট বাংলাদেশ কেবল শেখ হাসিনার দ্বারাই সম্ভব : সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী অর্থ আত্নসাৎ, দুই বছর বেতন বাড়বে না সমাজসেবা কর্মকর্তার

একটি সদস্য পদও পাননি বর্তমান সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শিক্ষাজীবনে ছাত্রলীগের প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে যুক্ত থাকার পরও ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে একটি সদস্য পদও পাননি আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নিজের সেই দুঃখের কথাই আজ জানালেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ক্ষমতাশীন দল আওয়ামীলী লীগের ভ্রাতৃপ্রতীম সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ২৮তম কেন্দ্রীয় সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শেখ হাসিনা নিজের এই দুঃখের কথা জানান।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আজ ছাত্রলীগের যারা নেতৃত্বে তারাই তো আগামী দিনে দেশের নেতৃত্বে আসবে। বাংলাদেশকে পরিচালিত করবে। আমি নিজেও ছাত্রলীগের কর্মী ছিলাম। কিন্তু আমি নেতা হতে পারিনি। কমিটিতে আমি একটি সদস্য পদও পাইনি। যদিও আমি প্রতিটি আন্দোলন-সংগ্রামেই ছিলাম। কিন্তু আমি কেন্দ্রীয় কমিটির কোনো সদস্য হতে পারিনি। এটা আমার দুঃখ থেকেই যাবে।’

তিনি বলেন, ‘স্বাধীনতাকে প্রতিষ্ঠিত করার লক্ষ্যেই আমরা কাজ করে যাচ্ছি। সেই লক্ষ্য নিয়েই আমরা কজ করে যাই।’

ছাত্রলীগ প্রতিষ্ঠার পটভূমি উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘যখন স্বাধীনতা ও বাংলা ভাষা নিয়ে ষড়যন্ত্র চলছিল, তখনই জাতির পিতার নেতৃত্বে ছাত্রলীগ প্রতিষ্ঠা হয়। বাংলাদেশে আজ যদি শহীদের তালিকা দেখি তাহলে দেখবো ছাত্রলীগই রক্ত ঝরিয়েছে বাংলাদেশের প্রতিটি অর্জনে।’

সংগঠনের সভাপতি এইচএম বদিউজ্জামান সোহাগের সভাপতিত্বে সম্মেলনের প্রথম দফায় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম, উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য তোফায়েল আহমেদ, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ওবায়দুল কাদের, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলমসহ মন্ত্রিপরিষদের বেশ কয়েকজন সদস্য ও আওয়ামী লীগ-ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নেতাকর্মীরা।

সংবাদ শেয়ার করুন

সতর্ক বার্তা

আমরা নিজস্ব সংবাদ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বে-আইনি। -ইন্দোবাংলা টীম।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ৩১ নির্দেশনা

© ইন্দোবাংলা২৪.কম সকল অধিকার সংরক্ষিত ২০২৩।
কারিগরি সহায়তায়: অল আইটি