মঙ্গলবার, ০৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৭:৫৫ পূর্বাহ্ন

সরকারি জরুরি হটলাইন

সরকারি তথ্য ও সেবা-৩৩৩, জরুরি সেবা-৯৯৯, নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে-১০৯, দুদক-১০৬, দুর্যোগের আগাম বার্তা-১০৯০, শিশুর সহায়তায় ফোন-১০৯৮, ভূমির সেবা পেতে...অভিযোগ জানাতে-১৬১২২, ই-জিপি জরুরি হেল্পলাইন-১৬৫৭৫, নৌপরিবহনের হেল্পলাইন-১৬১১৩। তথ্য সুত্র : পিআইডি

বগুড়ার গাবতলীতে যুবলীগ নেতা-কর্মীর ‘নেশার আড্ডায়’ পুলিশের হানা

গাবতলী প্রতিনিধিঃ বগুড়ার গাবতলী উপজেলায় মাদকসেবনরত অবস্থায় যুবলীগের সাত নেতা-কর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শুক্রবার দুপুরে মাদক আইনে মামলায় তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। এর আগে, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে ওই উপজেলার সুখানপুকুর ইউনিয়নের দিহিডগর গ্রাম থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। ঐ গ্রামে পলাশ রায় পোলানের পুকুরপাড়ের নির্মিত টিনের ঘরে মাদকসেবন করছিলেন তারা। পলাশ ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক। গ্রেফতাররা সবাই তার সহযোগী।

গ্রেফতাররা হলেন- সুখানপুকুর ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি চকরাধিকা গ্রামের বাসিন্দা ২৪ বছরের দেবাশিষ কুমার রায়, ইউনিয়ন যুবলীগের নেতা-কর্মী কিসমত কাঁকড়া গ্রামের বাসিন্দা  ২৫ বছর বয়সী জাহিদ হাসান, চকরাধিকা গ্রামের ২২ বছর বয়সী আশিক ইসলাম একই গ্রামের ২২ বছরের আল-আমিন ইসলাম, নজরারপাড়া গ্রামের ২৪ বছরের আব্দুল কুদ্দুস, পাথুরাপাড়া গ্রামের ২৩ বছরের আল-মমিন, চারমাথা গ্রামের ২৯ বছর বয়সী সুমন।

স্থানীয়রা জানান, যুবলীগ নেতা পলাশের পুকুরপাড়ে একটি টিনের ঘর আছে। ওই ঘরে স্থানীয় যুবলীগের নেতা-কর্মীরা নেশার আড্ডা বসায়। গভীর রাত পর্যন্ত সেখানে মাদকসেবন করা হয়।

গাবতলী মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. সোলায়মান আলী জানান, পলাশের পুকুরপাড়ের টিনের ঘরে অভিযান চালিয়ে গাঁজা সেবনরত অবস্থায় সাতজনকে গ্রেফতার করা হয়। মাদক আইনে মামলায় তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদ শেয়ার করুন

সতর্ক বার্তা

আমরা নিজস্ব সংবাদ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বে-আইনি। -ইন্দোবাংলা টীম।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ৩১ নির্দেশনা

© ইন্দোবাংলা২৪.কম সকল অধিকার সংরক্ষিত ২০২২।
কারিগরি সহায়তায়: অল আইটি