বুধবার, ০৭ Jun ২০২৩, ১২:৪৫ অপরাহ্ন

সরকারি জরুরি হটলাইন

সরকারি তথ্য ও সেবা-৩৩৩, জরুরি সেবা-৯৯৯, নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে-১০৯, দুদক-১০৬, দুর্যোগের আগাম বার্তা-১০৯০, শিশুর সহায়তায় ফোন-১০৯৮, ভূমির সেবা পেতে...অভিযোগ জানাতে-১৬১২২, ই-জিপি জরুরি হেল্পলাইন-১৬৫৭৫, নৌপরিবহনের হেল্পলাইন-১৬১১৩। তথ্য সুত্র : পিআইডি

শিরোনাম
পাটের বস্তার সঠিক ব্যবহার নিশ্চিতে কঠোর হবে সরকার -বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী হজযাত্রীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা সংক্রান্ত দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র ও অপপ্রচারের বিরুদ্ধে প্রবাসীদের সোচ্চার হতে হবে -মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী সিদ্ধিরগঞ্জে জমির ছবি তোলায় গণমাধ্যম কর্মীর উপরে হামলা হাতির আক্রমণ হতে মানুষের জানমাল রক্ষায় কাজ করছে সরকার – পরিবেশমন্ত্রী কারো লাঠিয়াল না কি রাজনৈতিক দল হবে তা বিএনপিরই সিদ্ধান্ত – তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী মহান মে দিবসে রাষ্ট্রপতির বাণী এ বছর চাল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ২ কোটি ২০ লাখ টন – কৃষিমন্ত্রী মহান মে দিবসে প্রধানমন্ত্রীর বাণী ঈদুল ফিতরে রেলযাত্রা স্বস্তিদায়ক হওয়ায় রেলমন্ত্রীর সন্তুষ্টি প্রকাশ

বগুড়ায় ২ বছর পর ২টি হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটন

স্টাফ রিপোর্টার : বগুড়ায় চাঞ্চল্যকর পৃথক দুই হত্যা মামলায় ৩ আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। ইতোমধ্যে জবানবন্দীর জন্য তাদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১২ মে) বেলা ১২টায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) বগুড়া কার্যালয়ে সাংবাদিকদের পিবিআই বগুড়ার পুলিশ সুপার (এসপি) মো. আকরামুল হক জানান, দীর্ঘ দুই বছর পর বগুড়া সোনাতলায় টাকা লেনদেনের জেরে বন্ধুর হাতে খুনের মামলায় গ্রেফতার হয়েছেন মারুফুল ইসলাম ওরফে পাপ্পু (২৮)। তিনি সোনতলা উপজেলার ঠাকুরপাড়া গ্রামের মৃত নজিবুরের ছেলে।

অন্যদিকে নন্দীগ্রামের আলোচিত উজ্জ্বল হত্যা মামলার দুই আসামাী আলী হাসান (২৮) ও সাইদুল ইসলাম সাহাদকে (৪০) গ্রেফতার করা হয়। তারা উভয়ই নন্দীগ্রামের শেখের মরিয়া এলাকার মৃত মুসা হাজী ও ফজলুর রহমানের ছেলে।

গত ২০২০ সালের ১১ এপ্রিল সোনাতলায় টাকা লেনদেনের জেরে বন্ধুর ছুরিকাঘাতে খুন হন ব্যবসায়ী পারভেজ ইসলাম সুমন। ওই দিন আসামী পাপ্পুর ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত অবস্থায় শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুপুর আড়াইটার দিকে মারা যায় তিনি।

মূলত নিহন সুমনের সোনাতলা বাজারে মোবাইল সিমের ব্যবসা ছিল এবং তার সাথে মাসুদ রানা নামের এক ব্যক্তি বিক্রয়কর্মী হিসেবে কাজ করতেন। ফলে সিম বিক্রির টাকা নিয়ে মাসুদের সাথে সুমনের দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল। এই বিরোধের মীমাংসের জন্য ২০২০ সালের ১১ এপ্রিল দুপুর ১টার দিকে সুমনকে তার বাড়ী থেকে সোনাতলার করমজা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ডেকে নেয় পাপ্পু। কিন্তু পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী বার্মিজ চাকুর আঘাতে সুমনকে হ‌ত্যা করা হয়।

অন্যদিকে, গেল দুই বছর আগে নন্দীগ্রামের শেখের মরিয়া এলাকায় পিটিয়ে হত্যা করা হয় উজ্জ্বল হোসেন (৩৮) নামের এক যুবককে। পরে নিহতের মা জহুরা বেওয়া স্থানীয় থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে বাদী নারাজী জানালে আদালতের নির্দেশে মামলার তদন্ত শুরু করে পিবিআই।

জানা যায়, নিহত উজ্জ্বলকে গরু চোর সন্দেহে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় জড়িত দুই ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পিবিআই। গ্রেফতার দুজনই বুধবার (১১ মে) বগুড়া চীফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার বিষয়ে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী প্রদান করেছেন।

সংবাদ শেয়ার করুন

সতর্ক বার্তা

আমরা নিজস্ব সংবাদ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো। বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বে-আইনি। -ইন্দোবাংলা টীম।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ৩১ নির্দেশনা

© ইন্দোবাংলা২৪.কম সকল অধিকার সংরক্ষিত ২০২২।
কারিগরি সহায়তায়: অল আইটি